ভাসানের নাচ // ঋজুরেখ চক্রবর্তী

গত শতাব্দীর আটের দশকের মাঝামাঝি। তৃণমূল কংগ্রেসের তখনও জন্ম হয়নি। পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেস বলে কোনও কিছু আর আছে কি নেই তাও ভালো বোঝা যায় না। বামফ্রন্ট তথা সিপিএমের দাপট এতটাই একচ্ছত্র যে ‘মুচে হো তো নাত্থুলালজি য্যায়সা, হো বরনা না হো’ সূত্র মেনে লোকে রাজনীতি করলে সিপিএম করে, আর নয়তো রাজনীতি করেই না। এই যখন সামাজিক হাল-হকিকত, ঠিক সেই সময় হাতিবাগান অঞ্চলে আমাদের এক বরাবর সিপিএম করে আসা পাড়াতুতো দাদা ─ পেশায় পাড়ার লজেন্স কারখানার মজুর ─ আচমকা সিপিএম ছেড়ে কংগ্রেসে নাম লেখাল। তার এরকম স্রোত-বিরুদ্ধ দলবদলে সকলেই রীতিমতো বিস্মিত ও চমকিত। তা, কারণ জানতে চাওয়ায় আমাদের সেই দাদা সিপিএমের নামে খুব খারাপ একটা গালি ছুঁড়ে দিয়ে অত্যন্ত বিরক্ত মুখে বলেছিল, “ধুর, ওরা ভাসানে নাচতে দেয় না!”

আজ সল্টলেকের এক সিটু-পরিচালিত অটোচালক ইউনিয়নের উদ্যোগে আয়োজিত বিশ্বকর্মা পুজোর ভাসানে উদ্দাম নাচের বহর দেখে সহসা সেই নাম-ভুলে-যাওয়া দাদার মুখখানা মনে পড়ে গেল। হায় রে, কত মানুষ জীবনের কত ক্ষেত্রে সময়ের আগে জন্মায়!

প্রসঙ্গত, কোনও বছর মে দিবসে কিন্তু সিটু-পরিচালিত ওই অটোচালক ইউনিয়নের কোনওরকম কোনও উদ্যোগ-আয়োজন কিছু চোখে পড়ে না।

ঋজুরেখ চক্রবর্তী

https://web.facebook.com/rijurekh.chakravarty.7

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *